স্মার্টফোন কেনার আগে যে বিষয়গুলো মাথায় রাখবেন

আসসালামুয়ালাইকুম আশা করছি আপনারা সবাই সুস্থ আছেন ভালো আছেন।

আজকে আপনাদের সাথে আলোচনা করবো কি কি দেখে একটা মোবাইল কেনা উচিত।আমাদের এক এক জনের কাছে মোবাইলের এক এক জিনিস ইম্পোর্ট্যান্ট হয়ে থাকে। কারো কাছে ক্যামেরা বেশি গুরুত্ব পায়,কারো কাছে মোবাইলের র্যাম,রম গুরুত্ব পায়,কারো কাছে মোবাইলের ব্র্যান্ড বেশি গুরুত্ব পায়,কারো কাছে মোবাইলের ডিসপ্লে বেশি গুরুত্ব পায়।কারো কাছে আবার মোবাইলের পারফরম্যান্স বেশি গুরুত্ব পায়।এক এক জনের গুরুত্ব এক এক রকম।তাই আজকে আপনাদের জানাবো যে যেটাই বেশি গুরুত্ব দিক না কেনো সেটা সম্পর্কে সঠিক ধারণা নিয়েই যেনো গুরুত্ব দেয়। আর আসলেই কি কি দেখে মোবাইল কিনা উচিৎ
তাহলে চলুন শুরু যাক।

আপনার বাজেট


প্রথমেই আসি মোবাইলের বাজেট নিয়ে।যে যত টাকাই বাজেট করেন না কেনো সে টাকারই মোবাইল কিনবেন।এর থেকে সামান্য বাড়িয়ে আরেকটা মোবাইল কিনবেন না।যদি আপনার বাজেট ১০,০০০ টাকা হয় তাহলে ১০,০০০ টাকা দিয়েই কিনবেন।

ফোনের পারফরম্যান্স


ফোন কেনার আগে মোবাইলটা বেশিদিন ব্যবহার করার পর কেমন পারফরম্যান্স দিচ্ছে তা জেনে নিন।যদি ভালো হয় তাহলে কিনুন।তাই আপনি একটা মোবাইল কিনতে চাইলে তার আগে একটু রিসার্চ করে জেনে নিন সেই ফোনের বিষয়ে।

ফোনের প্রসেসর


তারপর আসি মোবাইলের প্রসেসর নিয়ে।যদি মধ্যম দামের ফোন কিনতে চান তাহলে স্ন্যাপড্রাগন প্রসেসরের ফোন কিনুন।এতে অনেক সহজ ও ভালো প্রসেসর যুক্ত মোবাইল ফোন পাবেন।

র্যাম ও রম


এরপর আসি র্যাম-রম এর বিষয়ে।আমরা মনে করি যত বেশি র্যাম তত ভালো মোবাইল। যত দামী মোবাইল তত বেশি র্যাম। ৩জিবি/৪জিবি/৮জিবি/১৬ জিবি/৩২ জিবি র্যাম মানেই এটা নয় যে মোবাইলটা ভালো।কথা হচ্ছে র্যাম যতই বেশি হোক র্যামটি ভালো হতে হবে।র্যামের কাজ ভালো হতে হবে।দেখা গেলো ৮ জিবি র্যাম কিন্তু ৪/৫ টা এপস ডাউনলোড দিলেই সেটা ফুল হয়ে যায়।তাই র্যামের কোয়ালিটি দেখে মোবাইল ফোন বিচার করবেন।

ফোনের ক্যামেরা


আমাদের একটা ভূল ধারণা আছে যে যত বেশি ক্যামেরা তত ভালো ছবি উঠবে,যত বেশি মেগাপিক্সেল ক্যামেরা তত ভালো ছবি। আমরা এখন মোবাইল ফটোগ্রাফি বেশি পছন্দ করি।অনেকের কাছে মোবাইলের ক্যামেরা বেশি গুরুত্ব পায়।ভালো হওয়া নির্ভর করে ক্যামেরা সেন্সরের উপর।ক্যামেরে সেন্সর যত ভালো ব্র্যান্ডের তত ভালো ছবি উঠবে।যেমন সনির ক্যামেরা সেন্সর খুব ভালো।তাই আইফোনেও সনির সেন্সর ব্যবহার করা হয়।

ফোনের ব্যাটারি


এরপর আসি ব্যাটারিতে।মোবাইল কিন্তু পুরোটা ব্যাটারিতে চলেই।ব্যাটারি হলো মোবাইলের প্রাণ।তাই ব্যাটারি যত ভালো হবে মোবাইল তত বেশিদিন টিকবে।তত ভালো পারফরম্যান্স হবে।ব্যাটারি সবসময় ৪০০০ ওয়াটের কিনবেন।আর চার্জার ১৮ ওয়াটের ফাস্ট চার্জার।তাহলে ফোন ভালো হবে।

অপারেটিং সিস্টেম


এরপত আসি অপারেটিং সিস্টেমের উপর।এক এক জনের কাছে এক এক অপারেটিং সিস্টেম ভালো।আপনি যে অপারেটিং সিস্টেমের ফোন ব্যবহার করতে পছন্দ করেন সেটাই করবেন।নয়তো আপনি ফোন ব্যবহার করে মজা পাবেন না।

আর সবার শেষে বলব কখনও পুরাতন ভার্সনের ফোন কিনবেন নাহ।কারণ সেগুলোই নতুন ভার্সনের আপডেট দেয়া থাকে না।আর তাই আপনি ব্যবহার করে মজাও পাবেন না।

এই ছিলো আজকে এন্ড্রয়েড টিপস। আশা করি আপনাদের কিছুটা হলেও কাজে আসবে।